দাঁত ও মুখের রোগ, স্বাস্থ্য বিষয়ক ব্লগ

দাঁত ক্ষয় রোধের উপায় ও সকল পদ্ধতির ডাক্তারদের বক্তব্য।

দাঁত ক্ষয় হয় যাওয়া

দাঁত ক্ষয় হয়ে যাওয়াকে চিকিৎসা পরিভাষায় ডেন্টাল কেরিজ বলা হয়। দাঁতের সাথে লেগে থাকা খাদ্য কণায় বিশেষ ধরণের ব্যকটেরিয়া জন্মাতে পারে। এই ব্যকটেরিয়া দাঁতের উপরের স্তরকে ক্ষতিগ্রস্ত করে। এভাবে ধীরে ধীরে ভেতরের স্তরগুলোকেও ক্ষতিগ্রস্ত করতে থাকে। এভাবে ধীরে ধীরে আক্রান্ত অংশটি ক্ষয় হয়ে যায়। প্রাথমিক ভাবে ক্ষয় প্রাপ্ত অংশ কালচে দেখায়। যদি ক্ষয় উপরের ও মধ্যম স্তরে সীমাবদ্ধ থাকে তবে দাঁতে শিরশির অনুভূতি হবে। আর যদি ক্ষয় ভেতরের অংশে পৌছায় তবে দাঁতে বেদনা হবে। দাঁতের ক্ষয় যদি মধ্যম বা তার নিচের স্তর পর্যন্ত হয় তবে বিশেষ উপদান দ্বারা ছিদ্রটি বন্ধ করে দিলে (ব্যপারটিকে ডেন্টাল ফিলিং বলা হয়) সমস্যা হ্রাস পেতে পারে। আবার কিছু কিছু ক্ষেত্রে ফিলিং করার মত অবস্থা থাকে না। সে ক্ষেত্রে রুট ক্যানেল নামক প্রক্রিয়ায় দাঁতকে ঠিক করা হয়।

দাঁতের ক্ষয় দেখা যাওয়া মাত্র একজন দন্ত চিকিত্সকের পরামর্শ নিতে হবে। মনে রাখতে হবে যত দ্রুত চিকিৎসা করানো যায় তত ভালো। দন্ত ক্ষয় প্রতিরোধে দন্ত পরিচ্ছন্নতার নিয়ম মেনে চলতে হবে।

ক্ষয় হয়ে যাওয়া দাঁত ফেলে দিতে হবে এমন কোন কথা নেই। অনেক ক্ষেত্রেই তা ঠিক করা যায়। মনে রাখতে হবে দাঁত ফেলে দেয়া কোন চিকিৎসা নয় বরং দাঁতকে রক্ষা করাই প্রকৃত চিকিৎসা। (দাঁত ব্যথা অংশ দেখুন)

আমাদের অবিজ্ঞ দাক্তারদের থেকে পরামর্শ নিতে এখানে ক্লিক করুন  এপয়েন্টমেন্ট 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *