স্বাস্থ্য বিষয়ক ব্লগ, হরমোন ও মেটাবোলিক রোগ

হাইপোগ্লাইসেমিয়া হলে করণীয় ও সকল পদ্ধতির ডাক্তারদের বক্তব্য।

হাইপোগ্লাইসেমিয়া

ডায়বেটিস মেলাইটাস আক্রান্ত রোগী বিশেষত যারা ইনসুলিন গ্রহন করেন ( ওরাল হাইপোগ্লাইসেমিক ড্রাগ গ্রহনকারীগণ অন্তর্ভূক্ত) তাদের কখনো কখনো রক্তের গ্লুকোজের পরিমান আকস্মিকভাবে স্বাভাবিকের চেয়ে নিচে নেমে যায়। এই অবস্থাকে হাইপোগ্লাইসেমিয়া (hypoglycemia) বলা হয়। হাইপোগ্লাইসেমিয়া একটি প্রাণঘাতি অবস্থা। হাইপোগ্লাইসেমিয়ার লক্ষণ

ডায়বেটিস মেলাইটাস এর ইতিহাস

রোগী ডায়বেটিস এর ঔষধ গ্রহন বা ইনসুলিন গ্রহনের ইতিহাস।

আকস্মিক ভাবে শরীর অস্থির লাগা

ঘাম হওয়া।

শরীর দুর্বল লাগা।

চিন্তা শক্তি হ্রাস পাওয়া

কথা বলতে কষ্ট হওয়া বা জড়িয়ে যাওয়া। আবোল তাবোল কথা বলা।

শ্বাস নিতে কষ্ট হওয়া। ইত্যাদি

 

প্রাথমিক চিকিত্সা

ডায়বেটিস আক্রান্ত ও চিকিৎসা গ্রহন করছেন এমন কোন ব্যক্তির ক্ষেত্রে উপরোক্ত লক্ষণ প্রকাশ পেলে দ্রুত রোগীকে একগ্লাস পানিতে ৪-৬ চা চামচ চিনি/গ্লুকোজ গুলিয়ে তৎক্ষণাত খাইয়ে দিতে হবে। ১০-১৫ মিনিটের মধ্যে রোগী কিছুটা স্বস্তি অনুভব না করলে তাকে দ্রুত হাসপাতালে প্রেরণ করতে হবে। উপরোক্ত ভাবে চিনি/গ্লুকোজ খাওয়ানোর পর রোগী স্বস্তি বোধ করলেও তাকে দ্রুত রক্তের গ্লুকোজ পরীক্ষা করাতে বলতে হবে। মনে রাখতে হবে উপরোক্ত চিনি ডায়বেটিস আক্রান্ত রোগীর ক্ষেত্রে মারাত্নক কোন সমস্যা সৃষ্টি করে না তবে হাইপোেগ্লাইসেমিয়ার ক্ষেত্রে চিনি ( অথবা ফলের রস, কার্বহাইড্রেট ইত্যাদি) না খাওয়ালে তা মারাত্নক হতে পারে।

প্রতিটি ডায়বেটিস আক্রান্ত রোগীকে উপরোক্ত উপদেশ প্রদান করতে হবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *