চর্ম ও যৌন রোগ, স্বাস্থ্য বিষয়ক ব্লগ

লীকের রোগের লক্ষণ ও ব্যবস্থাপনা

লীকের রোগের লক্ষণ ও ব্যবস্থাপনা

নাকের রোগ বলতে নাক ও প্যারান্যাসাল সাইনাস ও ন্যাসোফ্যারিংস এর রোগ রোগাবস্থাকে বোঝায়।

 

নাকের রোগের সাধারণ কারণ

জীবাণু জনিত ইনফেকশন: ভাইরাস,ব্যকটেরিয়া, ফাঙ্গাস।

এলার্জি (যেমন- ধুলাবালি, ফুলের রেণু, খাদ্য ইত্যাদির প্রতি)।

উচ্চ রক্তচাপ

রক্ত ক্ষরণ প্রবনতা

আঘাত

বাহ্যিক বস্তু প্রবেশ।

ঔষধ: জাইলোমেটাজোলিন ও অক্সিমেটাজোলিন ( যেমন- রাইনোজোল, এন্টাজোল) নাকের ড্রপ।

 

নাকের রোগ প্রতিরোধে করণীয়। 

ধুলাবালি থেকে বেঁচে থাকা। প্রয়োজনে মাস্ক ব্যবহার করা।

এলার্জি জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলা। চিকিৎসার মাধ্যমে এলার্জি নিয়ন্ত্রণে রাখা ।

শিশুদের খেলার সময় খেয়াল রাখা যাতে নাকে কিছু প্রবেশ না করাতে পারে।

জাইলোমেটাজোলিন ও অক্সিমেটাজোলিন ( যেমন- রাইনোজোল, এন্টাজোল) নাকের ড্রপ এড়িয়ে চলা।

 

নাকের সমস্যার সাধারণ লক্ষণ 

সর্দি লাগা / নাক দিয়ে পানি পড়া

হাঁচি হওয়া

নাক বন্ধ থাকা

নাকের মাংস বৃদ্ধি

মাথা ব্যথা।

নাক দিয়ে রক্ত ক্ষরণ

নাক ডাকা। ইত্যাদি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *