দাঁত ও মুখের রোগ, স্বাস্থ্য বিষয়ক ব্লগ

দাঁতের রক্ত পড়া বন্ধের উপায় ও সকল পদ্ধতির ডাক্তারদের বক্তব্য।

দাঁতের গোড়া দিয়ে রক্ত আসা

সাধারণত দাঁত ব্রাশ করার সময় দাঁতের গোড়া দিয়ে রক্ত আসতে দেখা যায়। তবে অন্যান্য সময়ও দাঁত দিয়ে রক্ত আসতে পারে। এটি মূলত মাড়ির সমস্যার জন্য হয়ে থাকে। ভিটামিনের অভাব, দাঁতের গোড়ায় প্লাক জমা,মাড়ির ইনফেকশন, রক্তক্ষরণ প্রবণতা ইত্যাদি কারণে দাঁতের গোড়া দিয়ে রক্ত আসতে পারে। যদি আকস্মিক ভাবে একাধিক দাঁতের গোড়া দিয়ে রক্ত আসতে থাকে তবে দ্রুত একজন দন্ত বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে হবে। যদি জ্বর অবস্থায় বা জ্বরের পর দাঁত দিয়ে রক্ত ক্ষরণ হয় তবে দ্রুত এমবিবিএস চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। কারণ দাঁত দিয়ে রক্ত ক্ষরণ কিছু কিছু মারাত্নক রোগের লক্ষণও (যেমন- ডেঙ্গু, হিমোফিলিয়া, ব্লাড ক্যান্সার ইত্যাদি)।

প্রাথমিক চিকিৎসা

সাধারণ ব্যবস্থাপনা 

১। মুখের পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখা, নিয়মিত সঠিক নিয়মে ব্রাশ করা।

২। কুসুম গরম পানিতে লবন দিয়ে ভালকরে কুলি করা দিনে ৩-৪ বার।

৩। ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার (যেমন-লেবু) খাওয়া। / ভিটামিন বি কমপ্লেক্সযুক্ত খাবার খাওয়া।

ঔষধ। ১) এন্টিবায়োটিক

ক) জেনেরিক: এমক্সিসিলিন (amoxicillin)।

০ ব্রান্ড: ফাইমোক্সিল (Fimoxyl) ০ ডোজ:

প্রাপ্ত বয়স্কদের ক্ষেত্রে (১২ বছরের ঊর্ধে) : ০০ মিগ্রা দিনে তিনবার। শিশু: শিশুদের ক্ষেত্রে সিরাপ। ৫-১২ বছর : ১.৫ চামচ থেকে ২ চামচ সিরাপ দিনে তিন বার

৭ দিন।

খ) জেনেরিক: মেট্রোনিডাজল;

ব্রান্ড – ফিলমেট; (filmet) প্রস্তুতকারক-বেক্সিমকো ডোজ : প্রাপ্ত বয়স্ক : প্রতিবার ৪০০ মিগ্রা দিনে তিনবার ৫-৭ দিন। এ

২) মাউথ ওয়াস (প্রাপ্ত বয়স্কদের ক্ষেত্রে) জেনেরিক: পভিডন আয়োডিন মাউথ ওয়াস; জেনেরিক-ভায়োডিন মাউথ ওয়াস

ডোজ: ৫-১০ মিলি ঔষধ মুখে নিয়ে ভালভাবে কুলকুচি করা।

গ) টুথপেষ্ট: মেডিপ্লাস ডিএস টুথপেষ্ট । সকালে নাস্তার পর ও রাতে খাবার পর ব্রাশ করতে হবে ।

পরবর্তীতে রোগীকে একজন বিডিএস দন্ত চিকিৎসকের নিকট প্রেরণ করতে হবে।

 

আমাদের অবিজ্ঞ দাক্তারদের থেকে পরামর্শ নিতে এখানে ক্লিক করুন  এপয়েন্টমেন্ট 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *